যেভাবে বুঝবেন কেউ আপনাকে পছন্দ করে

মানুষের মন বোঝার কোনো সূত্র আছে? কেউ আপনাকে পছন্দ করে কি না, তা বুঝবেন কীভাবে? পুরোনো দিনের গানে বলা হয়েছে, চোখ যে মনের কথা বলে। তবে চোখ মনের কথা কতটুকু বলে দেয়, তা গবেষণার বিষয় হতে পারে। একবিংশ শতাব্দীতে এসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপর প্রান্তের

মানুষের পাঠানো ইমোকনের মাধ্যমে অনেকে মন বুঝতে চেষ্টা করে। তবে সেখানেও আছে গলদ। বাস্তবে হাসতে হাসতেও অনেকেই কান্নার ইমোকন পাঠায়! এখন নিশ্চয়ই মনে প্রশ্ন জেগেছে, তাহলে মন বোঝার উপায় কী। আঁটসাঁট হয়ে বসুন। ব্রিটিশ গণমাধ্যম দি ইনডিপেনডেন্ট সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কেউ পছন্দ করে কি না, তা বোঝার উপায়।

পোশাক: কেউ যদি সাক্ষাতে বারবার বাহু উন্মুক্ত করে দেখানোর চেষ্টা করেন, তাহলে বুঝে নিন তিনি সত্যিই আপনাকে পছন্দ করছেন। মনোবিদ জো হেমিংসের মতে, ‘এটি আসলে আপনার মনোযোগ আকর্ষণের প্রয়াস। এ চেষ্টাটি সাধারণত নারীদের করতে দেখা যায়।’

কথা বলার অজুহাত খোঁজা: যিনি আপনাকে পছন্দ করেন, তিনি কেবল আপনার সঙ্গে কথা বলার অজুহাত খুঁজতে থাকবেন। খুব সামান্য বিষয়েও তিনি আপনাকে বার্তা দেবেন। এ উপসর্গ দেখলে বুঝে নিন তিনি আপনার প্রতি আগ্রহী।

খুঁটিনাটি সব মনে রাখা: ‘কেউ যদি আপনার সঙ্গে সম্পর্ক গড়তে আগ্রহী হয়, তিনি অবশ্যই আপনার সঙ্গে তাঁর আগের আলাপচারিতা মনে রাখবেন,’ জানান হেমিংস। এটি যদি খুব ছোটখাটো ব্যাপারও হয়, তাও তিনি তা ভুলে যাবেন না। তিনি যদি আপনাকে পছন্দ করেন, এ রকম বহু খুঁটিনাটি বিষয় মনে রাখবেন।

বার্তার শেষে প্রশ্নবোধক চিহ্ন: কেউ যদি সব সময়ই প্রশ্নবোধক চিহ্ন দিয়ে বার্তা শেষ করেন, তাহলে বুঝে নিন তিনি আপনার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে চাচ্ছেন। এটি একটি কৌশল আপনাকে ধরে রাখার।

কাছে আসা: যিনি আপনাকে পছন্দ করেন, তিনি সুযোগ পেলেই আপনার কাছে আসার চেষ্টা করবেন। তাঁর শরীরের ভাষাও বলে দেবে যে তিনি আপনাকে পছন্দ করেন। তিনি এমনভাবে বসবেন বা দাঁড়াবেন, যাতে তাঁর শরীর আপনার মুখোমুখি থাকে। ‘এর মানে কেউ একজন আপনার সঙ্গ উপভোগ করছে,’ জানিয়েছেন মনোবিদ হেমিংস।

আগ্রহী করে তোলা: তিনি কি আপনাকে বারে, আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে বা বিভিন্ন খেলা দেখতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন? নিশ্চিত থাকুন, এটি কেবলই একটি আমন্ত্রণ নয়। তিনি আপনাকে তাঁর প্রতি আগ্রহী করে তোলার চেষ্টা করছেন, এমনটিই মত মনোবিদ ম্যাশনের।

পরবর্তী দেখা হওয়ার দিন জানানো: আগেই বলা হয়েছে, তিনি আপনার সঙ্গ চাচ্ছেন ও সঙ্গ উপভোগ করেন। ম্যাশনের মতে, আপনার সঙ্গে দেখা হওয়ার ফলে তাঁর হ্যাপি হরমোনের পরিমাণ বেড়ে যায়। তিনি আরো বেশিকিছু প্রত্যাশা করেন। যেকোনো উপায়ে তিনি পরবর্তী সময়ে দেখা হওয়ার দিনক্ষণ জানিয়ে দেবেন।

দিনের নির্দিষ্ট সময়ে সংস্পর্শে আসা: বার্তা সাধারণত দেওয়া হয় আনুষ্ঠানিক কোনো কাজে বা দায়িত্ববোধ থেকে। কিন্তু এসবের বাইরে গিয়েও কেউ যখন আপনাকে বিনা কারণে বার্তা দেবেন, ধরে নিন, তিনি আসলে এই সময়টুকু আপনাকে দিতে চাচ্ছেন, জানিয়েছেন মনোবিদ হেমিংস।

মনের অনুভূতি জানানো: এটিকে বিষয়বস্তুর সঙ্গে একেবারেই সুনির্দিষ্ট দেখাচ্ছে। কিন্তু সত্যিই কিছু মানুষ সরাসরি নিজের পছন্দের কথা জানিয়ে দেন স্পষ্টভাবে। মনোবিদদের মতে, দৃঢ় ও স্পষ্টভাবে এটি বলে দেওয়ার মানে হচ্ছে, তিনি আপনার সঙ্গে একটি দীর্ঘ ও বিশেষ সম্পর্ক তৈরি কতে চাচ্ছেন।

অতএব, কেউ আপনাকে পছন্দ করে কি না, তা জানতে নিশ্চয়ই এই লক্ষণগুলো খেয়াল করবেন।